জেনে নিন হাত পা ফর্সা করার উপায় ও উপকরণ…..

**কাঁচা দুধঃ

হাত পা ফর্সা করতে কাঁচা দুধ খুবই কার্যকরী। কাঁচা দুধে আছে ল্যাকটিক এসিড, যা ত্বকের ভিতর থেকে ফর্সা করে। হাত পায়ে কাঁচা দুধ ব্যবহার করতে আপনি প্রথমে একটি তুলা দিয়ে বল বানান। তারপর তুলার বল কাঁচা দুধে ভিজিয়ে হালকা ভাবে হাত ও পায়ে ঘষিয়ে ঘষিয়ে লাগান। শুকিয়ে গেলে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুল। প্রতিদিন হাত পায়ে কাঁচা দুধ ব্যবহার করলে খুব কম সময়েই আপনি সুন্দর হাত পা পাবেন।

**দুধ ও শুকনা কমলার খোসাঃ
শুকনা কমলার খোসা আপনার ত্বকের জন্য খুবই উপকারি। বিশেষ করে কমলার খোসা ত্বকের কালচে ভাব দূর করে এবং ত্বকের ময়লা পরিস্কার করে। আপনি প্রথমে কড়া রোদে কমলার খোসা রেখে তা ভালোভাবে শুকিয়ে নিন। কমলার খোসা শুখিয়ে গেলে তা ভালোভাবে পাউডার করে একটি পাত্রে সংরক্ষন করুন। এরপর ৪ টেবিল চামচ শুখনা কমলার খোসার গুঁড়ো নিয়ে তার সাথে দুধ মিশিয়ে খুব ভালোভাবে পেস্ট বানিয়ে নিন। পেস্টটি হাতে ও পায়ে লাগিয়ে নিন এবং লাগানোর ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এই মাস্কটি আপনার হাত ও পা থেকে ময়লা দূর করে আপনাকে দিবে ফর্সা ও উজ্জল হাত পা। আপনার হাত পা সুন্দর করতে সপ্তাহে ৩ দিন এই মাস্কটি ব্যাবহার করুন।

**টমেটোর রসের সাথে চন্দনের গুঁড়া ও হলুর মিক্সঃ
প্রাকৃতিক ব্লিচিং উপাদান আছে টমেটোর রসে। ত্বকের যত্নে হলুদের কোন জুড়ি নেই। ত্বক থেকে বয়সের দাগ, রোদের পোড়া দাগ ও ব্রনের দাগ দূর করে হলুদ। চন্দনের গুঁড়া ত্বকের ভিতর থেকে ময়লা পরিস্কার করে ও ত্বককে ফর্সা করতে সাহায্য করে। এই মাস্কটি ব্যবহার করতে প্রথমে ২ টেবিল চামচ টমেটোর রস, ১ চামচ হলুদের গুঁড়া ও ২ টেবিল চামচ চন্দনের গুঁড়ার সাথে গোলাপ জল মিশিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করে নিন। পেস্টটি হাত পায়ে লাগিয়ে ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ২ দিন এই মাস্কটি ব্যাবহার করে আপনি পেতে পারেন ফর্সা হাত ও পা।

**এলোভেরা ও শসার রসঃ
বহু গুনাগুন সম্পন্ন এলোভেরার। স্বাস্থ্য, ত্বক ও চুলের যত্নে বেশ উপকারি এলোভেরার রস। এলোভেরার রস ত্বকের ভিতরের কোষ গুলোকে পরিষ্কার করে ও দাগ দূর করে। শসার রস কালো দাগ দূর করতে বেশ প্রচলিত। এটি তৈরি করতে প্রথমে ১ টেবিল চামচ এলো ভেরার রস নিন এবং তার সাথে ৩ টেবিল চামচ শসার রস মিশিয়ে নিন। তারপর মিশ্রণটি হাতে ও পায়ে লাগান। লাগানোর ১০ মিনিট পর তা ধুয়ে ফেলুন। আপনি চাইলে ম্যাসাজ করতে পারেন। হাত, পায়ের কালো দাগ ও রোদের পোড়া দাগ দূর করতে এটি বেশ উপযোগী। তাই সপ্তাহে ২ বার মিশ্রণটি হাত পায়ে লাগিয়ে পেয়ে যান ফর্সা হাত ও পা।

**আলুর সাথে লেবুর রসঃ
আলু ও লেবু ত্বকের পোড়া দাগ ও কালো দাগ দূর করতে বেশ সহায়ক ভূমিকা রাখে। এটি তৈরী করতে প্রথমে আপনি ১ টেবিল চামচ আলু ও লেবুর রস করে মিশিয়ে মিশ্রণ তৈরী করে নিন। ১৫ মিনিটের জন্য মিশ্রণ টি হাত ও পায়ে লাগিয়ে রাখুন। তারপর পরিস্কার পানি দিয়ে ভালো করে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ৪ দিন করেই দেখুন আপনি কিভাবে কালো হাত পা থেকে মুক্তি পেয়ে ফর্সা হাত পা পেয়ে গেছেন।

** বেসনের মাস্কঃ
ত্বককে পরিস্কার করে ত্বকের লাবণ্যতা ফিরিয়ে আনে বেসন। বেসনের মাস্ক ব্যাবহার করে আপনি পেতে পারেন ফর্সা হাত পা। ফিরে পাবেন হারানো লাবণ্যতা। এটি তৈরি করতে প্রথমে ২ টেবিল চামচ বেসন, ১ চা চামচ হলুদের গুঁড়া, ২ টেবিল চামচ কাঁচা দুধ বা গোলাপ জল ও তার সাথে কয়েক ফোটা লেবুর রস মিশিয়ে ঘন পেস্ট তৈরি করে নিন। তারপর হাত ও পায়ে লাগিয়ে নিন এবং ১৫ মিনিটের ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে ২ বার ব্যবহার করে ফর্সা হাত পায়ের অধিকারী হতে পারেন।

**অলিভ অয়েলঃ
অলিভ অয়েলে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন ও অ্যান্টি অক্সিডেন্ট রয়েছে। হাত পা কালো হওয়ার প্রধান কারণ হল শুষ্কতা। তাই প্রয়োজন ময়েশ্চারাইজিং। প্রতি রাতে কালো হাত পায়ে লাগিয়ে নিন অলিভ অয়েল। এতে করে আপনার হাত পা ফর্সা হয়ে উঠবে তার সাথে হবে কোমল ও সতেজ।

হাত পায়ের যত্নে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হল পরিষ্কার হাত পা। সব সময় হাত পা পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখুন। বাহির থেকে ফিরে মুখের সাথে সাথে হাত পা পরিস্কার করুন। এতে করে হাত পায়ে ময়লা জমবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *