আপনার কি পড়ায় মন বসছে না?

পড়তে বসলেই আমাদের মন এদিক ওদিক উঁকি দিয়ে অন্য দুনিয়ায় হারিয়ে যায়। আর যখন ফিরে আসে, দেখা যায় অনেক সময় পার হয়ে গেছে। মাঝখান থেকে পড়াশোনা চলে যায় গোল্লায়! তাই পড়ার প্রতি ‘মনোযোগ বৃদ্ধিতে’ কী কী করা যায়, চলুন জেনে নিই-

১. উজ্জ্বল আলোয় পড়তে বসুন। দিনের বেলা যথেষ্ট প্রাকৃতিক আলোর জন্য জানালা-দরজা খোলা রাখুন। রাতের বেলা প্রয়োজনে টেবিল ল্যাম্প ব্যবহার করতে পারেন। কম আলোয় কখনো পড়বেন না।

২. পড়ার আগে মনকে তৈরি করা দরকার। পড়ার একটু আগে, কী পড়বেন, কেন পড়বেন, কোন চ্যাপটার কতক্ষণ পড়বেন সব ঠিক করে নিন। পড়ার সব জিনিস নিজের হাতের কাছে এনে রাখুন। যাতে বার বার উঠতে না হয়।

৩. পড়ায় মন বসানোর জন্য, একটা টাইম টেবিল তো অবশ্যই দরকার। কোনদিন কোন বিষয়টা পড়বেন। ক’টা চ্যাপটার পড়বেন। মাঝে কতক্ষণ ব্রেক। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত একটা রুটিন করে নিন। পরীক্ষার আগের ক’দিন এই রুটিন অনুযায়ী পড়ুন। অবশ্যই মাঝে ব্রেক নেবেন। ব্রেকে আপনার ইচ্ছামত কাজ করুন। তাহলে মন ভালো থাকবে।

৪. ফোন থেকে ভীষণভাবে মনঃসংযোগ নষ্ট হয়। তাই ফোন বন্ধ করে দিন। কিন্তু যদি একান্তই দরকার থাকে, তাহলে ফোন অন্য ঘরে রেখে আসুন।

৫. যে বিষয়গুলো আপনি পড়ছেন, সেগুলো যদি অন্য কাউকে পড়াতে পারেন তাহলে খুব ভালো। এটা খুব ভালো একটা উপায় পড়ায় মন বসানোর। অন্য কাউকে পড়াতে পড়াতে দেখবেন, নিজেরও রিভিশন হয়ে যাচ্ছে। আর পড়াগুলো মনেও থাকছে।

৫. শব্দ করে পড়লে ঘুম আসার সম্ভাবনা একবারেই কমে যাবে। মনে মনে পড়তে গেলে ঘুম বেশি আসে।

৬. পড়া শুরু করার আগে নিয়মিত চা কফি খান। পানির বোতল পাশে রাখুন। ঘুম এলে একটু পানি খান।

৭. অবশ্যই বিছানায় বসে পড়বেন না। পুরো শরীর রেস্টে চলে গেলে বাকি মস্তিষ্ক আর চোখেরও রেস্ট নিতে ইচ্ছে করবে। এজন্য চেয়ার টেবিলে বসে পড়ুন। পড়ার জন্য শান্ত নিরিবিলি জায়গা বেছে নিন।

৮. স্টিকি নোট, পেন্সিল বা কলম দিয়ে দাগিয়ে দাগিয়ে পড়ার চেষ্টা করুন এতে আপনার ইন্দ্রিয় সক্রিয় থাকবে ও পেশীগুলাও সতেজ থাকবে।

৯. ইন্টারনেটকে কাজে লাগান। সেখানে অনেক নতুন নতুন পয়েন্ট পাবেন। ইউটিউবে ভিডিও দেখতে পারেন পড়ার বিষয়ের উপর। এতে বেশি মনে থাকবে। কারণ ব্রেন অডিও ভিজুয়াল মাধ্যমকে বেশী মনে রাখতে পারে। আর সহজে বুঝে নিতে পারে।

১০. মোটিভেশন খুব গুরুত্বপূর্ণ। আপনি কেন পড়বেন বা পড়ছেন, সেটা মাথায় এনে উৎসাহ ও উদ্দীপনা নিয়ে পড়ুন।

সবশেষে মনে রাখবেন, পড়াশোনা মানসিক সাধনার ব্যাপার। ফোন-ফেসবুক, টেলিভিশন, আড্ডা- এসব থেকে নিজেকে দূরে রেখে চেয়ার টেবিলে বই নিয়ে বসে থাকা সহজ ব্যাপার নয়। কাজটি সহজ এবং আনন্দদায়ক হলে সবাই ভাল রেজাল্ট করতো। নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করতে মেডিটেশন করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *